Header Ads

পৃথিবীর চতুর্থ ধনী ক্লাবে সাড়ে ৬২ লক্ষ টাকায় চুক্তিবদ্ধ হলেন বাঙালি ফুটবলার


ফুটবলপ্রেমী সকল মানুষই জানেন জার্মানির বায়ার্ন মিউনিখ ফুটবল ক্লালের নাম। বায়ার্ন মিউনিখ এই মুহূর্তে বিশ্বের চতুর্থ ধনী ফুটবল ক্লাব। যে ক্লাবকে তরুণ ফুটবলারদের আঁতুড়ঘর বলা হয়। এই ক্লাব প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকেই তরুণ ফুটবলারদের পাকাপোক্ত করে তৈরি করে আসছে। এখনও সেই ধারা চলছে তাদের ক্লাবে বিদ্যমান। তারা নিজেদের তরুণ ফুটবলার গড়ে তোলার প্রকল্প থেকে এখনো সরে আসেনি। ডেভিড আলাবা, ম্যাটস হ্যামেলস, বাস্তিয়ান শোয়েনস্টেইনার, থমাস মুলারদের মতো তারকা ফুটবলারদের ক্যারিয়ার শুরু হয়েছে বায়ার্নের অ্যাকাডেমি থেকে। বিশ্বকাপ জয়ী ডিফেন্ডার ফিলিপ লামারের সারা জীবন কেটেছে বায়ার্ন মিউনিখেই।  


জার্মানির এই বিশ্ববিখ্যাত ফুটবল ক্লাবে ডাক পেলেন এক বাঙালি ফুটবলার। প্রথম ভারতীয় হিসেবে হাওড়ার ছেলে শুভ পাল নিজের নতুন কেরিয়ার শুরু করতে চলেছেন বায়ার্ন মিউনিখে। বায়ার্ন মিউনিখের অনূর্দ্ধ ১৯- এর প্রাথমিক স্কোয়াডে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। খুব শীঘ্রই ইতিহাসের খাতায় সফল বাঙালি ফুটবলার হিসেবে নাম লিপিবদ্ধ করতে চলেছেন তিনি। 

বায়ার্ন মিউনিখ ক্লাবের সাথে শুভ পাল চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন সাড়ে ৬২ লক্ষ টাকায়। যা তার কাছে এক বৃহত্তর পাওনা। কারণ শুভ পাল এক নিম্নবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা ছেলে। একসময় তাঁর কাছে জুতো কেনারও পয়সা ছিল না। ময়দানে ফুটবল খেলার জন্য প্রথম তিনি তাঁর দাদার হাত ধরে খেলা শুরু করেন। তাঁর আর্থিক অবস্থা খুব একটা ভালো না থাকার জন্য কোচ চিমা ওকোরি তাঁকে সাহায্য করেন। তিনি শুভ পালকে জুতো কিনে দেন। সেই জুতো পরেই তিনি বাংলা থেকে সূদুর জার্মানিতে পাড়ি জমাতে চলেছেন। বেলেঘাটা বলাকা ক্লাবে তাঁর ফুটবলের কেরিয়ার শুরু হয়েছিল। 

শুভ পাল বাংলার একজন সম্ভাবনাময় ফুটবলার। তিনি বর্তমানে দিল্লির আই লিগ ক্লাব সুদেবা এফসির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ রয়েছেন। এই ক্লাবের সাফল্যের পিছনে তাঁর মুখ্য অবদান রয়েছে। কেবল ক্লাবেই খেলে সফল হননি তিনি, দেশের হয়েও ফুটবল খেলে সমান সফল হয়েছেন তিনি। ভারতীয় অনূর্ধ্ব ১৭ দলের হয়েও তিনি প্রতিনিধিত্ব করেছেন৷ তিনি অনূর্ধ্ব ১৬ দলের হয়ে এশিয়ান কাপ কোয়ালিফায়ারে ৩ ম্যাচে ৩ গোল করেন। অনূর্ধ্ব ১৭ দলের হয়ে ১১ ম্যাচে ৭ গোল করেছিলেন তিনি। এরপর জার্মানিতে সফল কেরিয়ার গড়ে তোলা শুধু সময়ের অপেক্ষা।  

বায়ার্ন মিউনিখের তরফে কয়েকদিন আগে একটি নতুন প্রজেক্টের কথা ঘোষণা করা হয়। ওয়ার্ল্ড স্কোয়াডের জন্য তারা বিশ্বজুড়ে উঠতি তারকাদের বাছাই করে তাদের দলে নিতে চায়। তারপর ঐ ক্লাবের ট্রেনিং মাঠে অনূর্ধ্ব ১৯ দলের সঙ্গে তাঁদের কখনও অনুশীলন, কখনও ম্যাচ চলবে। কোচের নজরে এলে জুটে যেতে পারে ক্লাবের হয়ে খেলার সুযোগ। এই লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে একটি ট্রায়াল ভিডিও পাঠানোর আর্জি জানানো হয়। ৬৪ টি দেশ থেকে প্রায় দেড় হাজারেরও বেশি ভিডিও জমা পড়ে। সেখান থেকে ১৫ টি দেশের ১৫ জন ফুটবলারকে বেছে নিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ ক্লাব। তাদের মধ্যে উঠে এসেছে বাঙালি ফুটবলার শুভ পালের নাম৷ 

বাঙালি ফুটবলার শুভ পালের জার্মান পাড়ি আবারও প্রমাণ করতে চলেছে যে ভারতে ফুটবলের মধ্যে বাঙালির বিকল্প আর কেউই নেই। 

প্রতিবেদন- সুমিত দে


No comments